খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া


প্রিয় পাঠক, আপনি কি খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া নিয়ে ভাবছেন ? অথবা আপনি একেবারে নতুন তাহলে চিন্তা করার দরকার নেই। নতুনদের জন্য সহায়ক হিসেবে আমরা এই আর্টিকেলটি তৈরি করেছি। আজকের আর্টিকেলে খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া সহ যাবতীয় বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।
খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া
খুলনা থেকে ঢাকা যাত্রীদের জন্য নকশীকাথাঁ কমিউটার ট্রেনটি একটি আদর্শ বিকল্প, এবং ট্রেনটি খুবই আকর্ষণীয় করে সাজানো হয়েছে। আজকের আর্টিকেলে খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া সহ সকল তথ্য বিস্তারিত আলোচনা করতে চলেছি।

পেজ সূচিপত্রঃ খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া

ভূমিকা

নকশীকাঁথা কমিউটার ট্রেনটি হলো একটি ট্রেন যা বাংলাদেশ রেলওয়ে দ্বারা চালিত হয়। আজকে আমরা নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস কমিউটার ট্রেনটির সম্পর্কে আলোচনা করব। আপনি যদি এই ট্রেনে ভ্রমণের পরিকল্পনা করে থাকেন, তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার জন্য উপযোগী হতে পারে।

আর্টিকেলে আপনি নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস কমিউটার ট্রেনের সময়সূচী, ভাড়ার তালিকা, স্টেশনের বিরতি, এবং সময়সূচীর ছুটির দিন সম্পর্কে সব তথ্য পাবেন। তাই এই সকল আপডেট তথ্যগুলি জানতে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

নকশীকাঁথা ট্রেন সম্পর্কে সংক্ষেপে

খুলনা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকা এখন একটি কমিউটার ট্রেন চলছে। ট্রেনটি হল নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস (২৫-২৬) কমিউটার ট্রেন। এই ট্রেনটি পূর্বে খুলনা থেকে গোয়ালন্দ রুটে মেইল ট্রেন হিসেবে পরিচালিত হতো, কিন্তু এখন এটি বৃদ্ধি করে খুলনা-ঢাকা রুটে চলছে এবং মেইল ট্রেনের শ্রেণি পরিবর্তন করে কমিউটার ট্রেন হিসেবে পরিণত হয়েছে।
ট্রেনের ছয়টি বগিতে প্রায় ৬০০ আসন রয়েছে। যাত্রীরা খুলনা থেকে প্রায় ৫০০ কিলোমিটার দূরত্বের ঢাকায় যেতে পারেন। এই ট্রেনটি খুলনা রেলওয়ে স্টেশন হতে যাত্রা শুরু করে এবং ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রা শেষ করে। ট্রেনটি এই পথ ভ্রমণ করতে সর্বাধিক ১১ ঘণ্টা সময় নিয়ে চলে। এটি নিয়মিতভাবে চলাচল করে।

খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন স্টপেজ সমূহ

যাত্রাপথে স্টেশন বিরতি ট্রেন ভ্রমণকে অত্যন্ত আনন্দদায়ক এবং রোমাঞ্চকর করে তোলে। নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস ট্রেনটি তার দীর্ঘ যাত্রাপথে বেশকিছু স্থানে বিরতি রাখে। সকল স্টেশনের নাম নিম্নে দেওয়া হলো।
  • খুলনা
  • খুলনা জংশন
  • দৌলতপুর কলেজ
  • দৌলতপুর
  • ফুলতলা
  • বেজেরডাঙ্গা
  • নওয়াপাড়া
  • চেঙ্গুটিয়া
  • সিঙ্গিয়া
  • রূপদিয়া
  • যশোর জংশন
  • মেহেরুল্লাহ নগর
  • বারোবাজার
  • মোবারকগঞ্জ
  • সুন্দরপুর
  • কোট চাঁদপুর
  • সাপদারপুর
  • আনসার বাড়িয়া
  • উথলী
  • দর্শনা হল্ট
  • দর্শনা জংশন
  • চুয়াডাঙ্গা
  • মুন্সিগঞ্জ
  • আলমডাঙ্গা
  • হালসা
  • পোড়াদহ
  • কুষ্টিয়া কোট
  • কুষ্টিয়া
  • কুমারখালী
  • খোকসা
  • মাছপাড়া
  • পাংশা
  • কালুখালী
  • বেলগাছি
  • রাজবাড়ি
  • পাচুরিয়া জংশন
  • খানখানাপুর
  • বসন্তপুর
  • আমিরাবাদ
  • ফরিদপুর
  • বাখুন্ডা
  • তালমা
  • পুখুরিয়া
  • ভাঙ্গা
  • ভাঙ্গা জংশন
  • শিবচর
  • পদ্মা
  • মাওয়া
  • শ্রীনগর
  • নিমতলা
  • গেন্ডারিয়া
  • কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন
নকশিকাঁথা এক্সপ্রেস কমিউটার ট্রেনটি উপরে উল্লেখিত রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে অতিক্রমণ করে এবং যাত্রা বিরতি নেয়।

খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী

নকশীকাঁথা ট্রেনটির সময়সূচি জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রয়োজন। ট্রেন যাত্রা করার জন্য সময় একটি মৌলিক বিষয়। এটি নিরাপদ এবং সুবিধাজনক যাত্রার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। নিচে দেওয়া হলো নকশীকাঁথা ট্রেনের সময়সূচি।

খুলনা থেকে ঢাকা
  • খুলনা থেকে ছাড়েঃ রাত ১১ঃ৩০ মিনিটে
  • ঢাকা পৌঁছায়ঃ সকাল ১০ঃ১০ মিনিটে
ঢাকা থেকে খুলনা
  • ঢাকা থেকে ছাড়েঃ সকাল ১১ঃ৪০ মিনিটে
  • খুলনা পৌছায়ঃ রাত ১০ঃ২০ মিনিটে
উপরের সময়সূচি ভ্রমণকারীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং কাজে লাগতে পারে, তবে সময় পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। ভ্রমণকারীরা ভ্রমণের পূর্বে সর্বশেষ সময়সূচি যাচাই করতে সুপারিশ করা হচ্ছে যাতে তারা সঠিক তথ্য পেতে সক্ষম হোক।

খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন ভাড়ার তালিকা

নিজের ভ্রমণের জন্য খুবই সুবিধাজনক এবং মানসম্মত ভাড়ায় নকশীকাঁথা মেইল ট্রেনে ভ্রমণ করুন। খুলনা থেকে ঢাকা পথে চলাচল করতে এই ট্রেনটি আপনার ভ্রমণকে আরও সুবিধাজনক এবং মৌলিক করে তোলে। ভ্রমণকারীদের জন্য খুলনা থেকে ঢাকা রুটে অত্যন্ত সুবিধাজনক ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে।
এই ট্রেনটি ১ ডিসেম্বর ২০২৩ তারিখ থেকে চলাচল শুরু করেছে এবং এর ভাড়া নির্ধারিত করা হয়েছে ২১০ টাকা। যা ভ্রমনকারীদের জন্য এই রুটে চলাচলের জন্য অত্যন্ত সুবিধাজনক ভাড়া। নিজেকে সুরক্ষিত রাখতে ট্রেনে ভ্রমণ করার জন্য সময়সূচি যাচাই করতে ভুলবেন না।

খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের ছুটির দিন সমূহ

ট্রেন ভ্রমণের ক্ষেত্রে একজন যাত্রীর ছুটির দিন সম্পর্কে জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ট্রেন বন্ধের দিন সম্পর্কে অবগত না থাকলে ভ্রমণকারীদের জন্য অসুবিধা হতে পারে। তাছাড়া তাদের ভ্রমণ পরিকল্পনা পরিবর্তনের সহায়তা করতে পারে। নিচে খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের ছুটির দিন দেওয়া হল।

নকশীকাঁথা এক্সপ্রেস
  • ছুটির দিনঃ নাই অর্থাৎ এটি প্রতিদিন চলাচল করে।
ট্রেন বন্ধের অসুবিধাগুলি মোকাবেলার জন্য ভ্রমণকারীদের কাছে পূর্ববর্তী প্রয়োজনীয় তথ্য অনুসন্ধান করা গুরুত্বপূর্ণ।

আজকের আর্টিকেলে সচরাচর প্রশ্ন

প্রশ্নঃ নতুন সময়সূচি কোথায় পাওয়া যাবে?
উত্তরঃ নতুন সময়সূচির জন্য আপনি আমাদের আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে দেখতে পারেন। তাছাড়া স্থানীয় রেলওয়ে স্টেশনে অথবা অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে চেক করতে পারেন।
প্রশ্নঃ নকশীকাঁথা ট্রেনের সময়সূচি কি পরিবর্তন হয়েছে?
উত্তরঃ হ্যাঁ। নকশীকাঁথা ট্রেনের সময়সূচি পরিবর্তন হয়েছে।
প্রশ্নঃ ট্রেনের ভাড়া কত?
উত্তরঃ খুলনা টু ঢাকা ২১০ টাকা ভাড়া নির্ধারিত হয়েছে।
প্রশ্নঃ ট্রেনে কোনও সার্ভিস প্রদান করা হয় কি?
উত্তরঃ হ্যাঁ । আসল বিন্যাস, পর্যবেক্ষন এবং মালপত্র পরিবহনের সুবিধা রয়েছে।
প্রশ্নঃ ট্রেনের ছুটির দিন কোনগুলি?
উত্তরঃ সাপ্তাহিক কোন ছুটি নাই। প্রতিদিন চলাচল করে।

শেষ কথাঃ খুলনা টু ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া

প্রিয় পাঠক, আজকের আর্টিকেলে খুলনা থেকে ঢাকা নকশীকাঁথা ট্রেনের নতুন সময়সূচী ও ভাড়া সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আশা করি আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের খুলনা থেকে ঢাকা এবং ঢাকা থেকে খুলনা যাতায়াতে সহযোগিতা করবেন। আপনি যদি আর্টিকেলটি পড়ে না থাকেন তাহলে অবশ্যই মনোযোগ সহকারে পড়বেন।
আজকের আর্টিকেলটি আপনাদের কাছে কেমন লেগেছে কমেন্টের মাধ্যমে অবশ্যই জানাবেন এবং আর্টিকেলটি শেয়ার করে অন্যদের দেখার সুযোগ করে দিন। আপনার যাত্রা হোক সুস্থ এবং আনন্দময়!

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url