টাইগার মুরগি চেনার উপায় কি জেনে নিন

বাসা বাড়ি অথবা খামারে আমরা বিভিন্ন ধরনের মুরগি দেখতে পাই, এর মধ্যে অন্যতম হলো টাইগার মুরগি। এই মুরগির সাথে কিছু অন্য মুরগির সাদৃশ্য রয়েছে তাই আপনাকে জানতে হবে টাইগার মুরগি চেনার উপায় কি? আপনি বাজারে গিয়ে চাইলেন টাইগার মুরগী কিন্তু আপনাকে দিয়ে দিল দেশি মুরগি তাই টাইগার মুরগি চেনার উপায় জানা অত্যন্ত জরুরী।
টাইগার মুরগি চেনার উপায়
আজকের এই আর্টিকেলটিতে আপনি বিস্তারিত জানতে পারবেন টাইগার মুরগি চেনার উপায় এর পাশাপাশি আপনি জানতে পারবেন পালন পদ্ধতি, খাবার তালিকা, ডিম ইত্যাদি সম্পর্কে।

পেজ সূচিপত্রঃ টাইগার মুরগি চেনার উপায়

টাইগার মুরগি পালন পদ্ধতি

সচরাচর গ্রামে মা-বোনেরা মুরগি পালন করে থাকেন। মুরগি পালন আধিক লাভের ব্যবসা। চলুন আলোচনার এ পর্যায়ে আমরা জেনে নেই পালন পদ্ধতি। টাইগার মুরগি পালনের জন্য প্রথমেই আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যেন মুরগি পর্যাপ্ত পরিমাণ আলো-বাতাস পায় এমন একটি জায়গা নির্বাচন করা।
গ্রীষ্মকাল অথবা শীতকাল যে কোন সেজন হোক না কেন মুরগির ঘরে পর্যাপ্ত পরিমাণ ব্রুডিং করতে হবে যেন তাপমাত্রা সঠিক থাকে। টাইগার মুরগি পালন পদ্ধতির অন্যতম অংশ হলো মুরগির ঘর সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। পরিষ্কার জন্য আপনি ব্যবহার করতে পারেন ব্লিচিং পাউডার, লবন, চুন ইত্যাদি।

টাইগার মুরগি চেনার উপায়

খাবার খাবির খামার খামারিরা অনেকে এই মুরগি পালন করে লাভবান হতে চাই। অনেক খামারি আছে যারা টাইগার মোড়ে চিনেন না যার কারণে মুরগি নিয়ে এসে লাভবান হতে পারে না। অন্যান্য মুরগির চাইতে এ জাতের মুরগির রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক বেশি এছাড়াও ডিম ও গোস্তের দিক থেকে অন্যান্য মুরগির চাইতে অনেক উন্নত। চলুন জেনে নেই টাইগার মুরগির চেনার উপায় সমূহ।
  • সাধারণ মুরগির চাইতে বেশি বৈশিষ্ট্য রয়েছে এ জাতের মুরগির যা চোখের সামনে দেখলেই বোঝা যায়।
  • সাধারণ মুরগির চাইতে টাইগার মুরগির শরীর মোটাসোটা এবং গোস্ত বেঁচে থাকে তাই অন্য মুরগির চাইতে এটি আলাদা মনে হয়।
  • এর অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এই মুরগির পা অন্যান্য মুরগির চেয়ে অনেক মোটা হয়।
  • এছাড়া এই মুরগিটির বডিটা কিছুটা গোলাকার।
  • সাধারণ মুরগির চাইতে এই মুরগিটির ওজন অনেক বেশি হয়ে থাকে।
  • যে সকল মুরগির রঙ লাল দেখবেন সেগুলো একটু হালকা রঙের হয়ে থাকে এটি অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য।
ওপরের পয়েন্ট গুলো আপনাকে এ জাতের মুরগির চেনাতে সাহায্য করবে। । এতক্ষণ জানলেন টাইগার মুরগী চেনার উপায়।

টাইগার মুরগির খাবার তালিকা

টাইগার মুরগির খাবার তালিকা নির্ভর করে তার ওজনের ওপর নির্ভর করে। তাহলে চলুন জেনে নিই কোন দিন এবং কতটুকু ওজন হলে কি পরিমান খাদ্য দেওয়া প্রয়োজন। 
  • টাইগার মুরগির যখন একদিন বয়স হবে তখন এর ওজন হতে হবে ৫৬ গ্রাম। ওজন অনুযায়ী একে খাবার দিতে হবে মোট ১৩ গ্রাম।
  • দ্বিতীয় দিনের এর ওজন হবে ৭২ গ্রাম। ওজন অনুযায়ী খাবার দিতে হয় ১৭ গ্রাম।
  • তৃতীয় দিন এর ওজন হবে ৮৯ থেকে 90 গ্রাম এবং খাবারের পরিমাণ হবে ২১ গ্রাম।
  • চতুর্থ দিন এর ওজন হবে ১০৯ গ্রাম এবং খাবার দিতে হবে ২৩ গ্রাম।
  • পঞ্চম দিনে ওজন হবে এর সর্বমোট ১৩০ থেকে ১৩১ গ্রাম এবং খাবার দিতে হবে ২৬ থেকে ২৭ গ্রাম।
  • ষষ্ঠ দিনে এর ওজন হবে ১৫৭ থেকে ১৬০ গ্রাম এবং খাবার দিতে হবে ৩০ থেকে ৩১ গ্রাম।
  • সপ্তম দিনে এর ওজন হবে ১৮০ থেকে ১৮৫ গ্রাম এবং খাবার দিতে হবে ৩৪ থেকে ৩৫ গ্রাম।
এরপর থেকে আপনি প্রতিদিন ৪ গ্রাম করে বৃদ্ধি করে খাবার দিতে থাকুন। এই ছিল টাইগার মুরগির খাবার তালিকা।

টাইগার মুরগি কত দিনে ডিম পাড়ে

আলোচনার এ পর্যায়ে আপনাদের জানাবো টাইগার মুরগি কত দিনে ডিম পাড়ে। ঠিকমতো খাবার ও মুরগি পরিপূর্ণভাবে বেড়ে উঠে সাধারণত পাঁচ থেকে ছয় মাসেই ডিম পারা শুরু করে এবং টাইগার মুরগী বছরে ১৬০ থেকে ১৮০ টি পর্যন্ত ডিম দিয়ে থাকে। যা আড়াই বছর পর্যন্ত চলমান থাকে। এরপর আস্তে আস্তে ডিম পাড়া কমে যায়। 

টাইগার মুরগি পালনে লাভ কেমন

এই আর্টিকেলে আপনি টাইগার মুরগি চেনার উপায়, এ জাতের মুরগির খাবার তালিকা এবং পালন পদ্ধতি সম্পর্কে জেনেছেন। চলুন এ পর্যায়ে আমরা জেনে নি টাইগার মুরগী পালনে লাভ কেমন হয়।টাইগার মুরগী পালনে কয়েকটি ভাগে বেশ লাভজনক ব্যবসা করা যায় একটি হচ্ছে ডিম বিক্রি করে, বাচ্চা বিক্রি করে এবং মুরগি বিক্রি করে। চলুন জেনে নেই কোনটা কেমন লাভ।
  • আপনি যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ বাচ্চা উৎপাদন করতে পারেন তাহলে একটি বাচ্চা প্রায় ৫০ থেকে ৫৫ টাকায় বিক্রি করতে পারবেন। যা খরচ বাদে আপনি মাসে৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন।
  • যেহেতু একটি এ জাতের মুরগি মাসে ১৪ থেকে ১৫ টা ডিম দেই। এবং প্রতিটি ডিমের দাম ১৫ টাকা করে হলে, আপনার পর্যাপ্ত পরিমাণ মুরগি থাকলে আপনি খরচ বাদে মাসে প্রায় ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন।
  • এ জাতের মুরগির স্বাস্থ্য অনেক ভালো তাই বাজারে এর পর্যাপ্ত পরিমাণ চাহিদা রয়েছে যা আপনি প্রতি কেজি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা বিক্রি করতে পারবেন। আপনার ফার্মে অথবা খামারে অথবা বাসায় যদি পর্যাপ্ত পরিমাণ টাইগার মুভি পালন করে থাকেন তাহলে আপনি ছোট জায়গায় প্রায় খরচ বাদে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন।

উপসংহারঃ টাইগার মুরগি চেনার উপায়

আর্টিকেলটিতে টাইগার মুরগি বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। বাংলাদেশের যত সময় যাচ্ছে অনেক উদ্যোক্তা এ জাতের মুরগি পালনে উদ্বুক্ত হচ্ছে। তাই আমাদের এই আর্টিকেলটি তাদের উদ্দেশ্যে লেখা যারা এ জাতের মুরগির চেনার উপায় সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আশা করি আপনারা টাইগার মুরগির চেনার উপায় গুলো জানতে পেরেছেন।

যদি আপনি এখনো এই মুরগিটি চিনতে না পেরে থাকেন তাহলে মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আপনার কোন মতামত থাকলে তা আমাদের কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে জানান। মুরগি চেনে পালন করুন, বেকার মুক্ত সমাজ গড়ুন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url