ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী

আজকে আমরা পঞ্চগড়বাসীদের জন্য ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা নিয়ে জানাবো। ঢাকায় বা অন্য কোথাও কাজের জন্য যারা পঞ্চগড়ে ট্রেনে ভ্রমণ করতে চায়, তাদের জন্য এই পোস্টের মাধ্যমে ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়ার তালিকা দেখতে সুযোগ রয়েছে ।
ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী
বাংলাদেশের সবচেয়ে সুন্দর ও নিরাপদ যানবাহন হলো ট্রেন, তাই ঈশ্বরদী টু পঞ্চগড় যাতায়াতের যাওয়ার জন্য ট্রেন ব্যবহার করলে ভালো হয়। আমার এই আর্টিকেলটির মাধ্যমে ঈশ্বরদী টু পঞ্চগড় সকল ট্রেনের তথ্য প্রদান করা হবে, তাই আপনারা অবশ্যই ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী জানতে এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন।

পেজ সূচিপত্রঃ ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী

ভূমিকা

বর্তমানে আমরা বিভিন্ন কারণে ট্রেনের সময়সূচী দেখতে রেলওয়ে স্টেশনে যেতে পারছি না। তবে আমরা খুব সহজেই অনলাইন থেকে ট্রেনের চলাচলের সময়সূচী এবং ভাড়া তালিকা দেখতে পারছি। এই কারণে, বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত করার জন্য অনলাইন ট্রেন সময়সূচী দেখতে অনেকে অনলাইনে তথ্য অনুসন্ধান করছেন।
এই নিবন্ধে, আমরা ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী এবং ভাড়া তালিকা সহ আরও প্রাসঙ্গিক তথ্য দেখতে যাচ্ছি। আশা করছি আজকের নিবন্ধটি আপনার নিরাপদ রেল ভ্রমণের জন্য সহায়ক হবে।

ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেন সম্পর্কে সংক্ষেপে

ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশন একটি ঐতিহাসিক রেলওয়ে জংশন এবং স্টেশন, এটি পাবনা জেলায় ঈশ্বরদী উপজেলায় অবস্থিত। যা প্রায় শত বছরের পুরাতন এবং ব্রিটিশ শাসনকালে নির্মাণ করা হয়েছিল। এটি ঈশ্বরদী উপজেলা এবং পূর্ব পাবনা জেলার মধ্যে অবস্থিত একটি প্রধান রেল জংশন হিসেবে মহত্ত্বপূর্ণ ছিল। পাশাপাশি, বর্তমানে ঈশ্বরদী বাইপাস রেলওয়ে স্টেশন তৈরি করা হয়েছে।
ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় যাওয়ার জন্য অনেকগুলো ট্রেন মাধ্যমে রয়েছে। একতা এক্সপ্রেস সরাসরি ঈশ্বরদী বাইপাস থেকে পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে করে। এটি ছাড়াও আরো যে সকল ট্রেন চলাচল করে সেগুলো সম্পর্কে আলোচনা করা হবে।

ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী

আমি আপনাকে এই পথে আন্তঃনগর ট্রেন সেবা বেছে নেওয়ার জন্য পরামর্শ দিতে চাই। ঈশ্বরদী হতে পঞ্চগড় আন্তঃনগর ট্রেন সার্ভিসের সময়সূচি নিম্নলিখিত রয়েছে। এই পথটি প্রায় ৩২৭ কিলোমিটার দীর্ঘ। কোন পথে ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনে যাত্রা করতে পারবেন তা নিচে আলোচনা করা হলো।
  • ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা একতা এক্সপ্রেস (৭০৫) ঈশ্বরদী বাইপাস পৌঁছায় দুপুর 02ঃ২১ মিনিটে। ৩ মিনিট বিরতির পর পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে রওনা হয় ০২ঃ২৪ মিনিটে এবং পঞ্চগড়ের বীর সিরাজুল ইসলাম স্টেশনে পৌঁছায় রাত ০৯ঃ০০ মিনিটে।
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশ্যে যাত্রা করা রাজশাহী এক্সপ্রেস (৫) ঈশ্বরদী পৌঁছায় সন্ধ্যা ০৬ঃ২৫ মিনিটে। রাজশাহী পৌছায় ০৮ঃ১৫ মিনিটে। রাজশাহী থেকে পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস (৮০৩) ট্রেন যাত্রা করে রাত ০৯ঃ০০ মিনিটে এবং পঞ্চগড়ের বীর সিরাজুল ইসলাম ষ্টেশনের পৌছায় সকাল ০৪ঃ৩০ মিনিটে।
  • রাজশাহীর উদ্দেশ্যে যাত্রা করা সাগরদাঁড়ি এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঈশ্বরদী পৌঁছায় রাত ০৮ঃ৩৫ মিনিটে। এই ট্রেনে যাত্রা করে আব্দুল্লাহপুর পৌঁছাতে হবে। আব্দুলাপুর থেকে পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে বাংলাবান্ধা এক্সপ্রেস (৮০৩) যাত্রা করে রাত ১০ঃ০৪ মিনিটে এবং বীর সিরাজুল ইসলাম স্টেশনে পৌঁছায় সকাল ০৪ঃ৩০ মিনিটে।
  • চিলাহাটি অভিমুখে যাত্রা করা রুপসা এক্সপ্রেস (৭২৭) ট্রেন ঈশ্বরদী পৌঁছায় সকাল ১১ঃ৪০ মিনিটে। ঈশ্বরদী থেকে জয়পুরহাট পৌঁছায় দুপুর ০২ঃ০২ মিনিটে। জয়পুরহাট থেকে একতা এক্সপ্রেস (৭০৫) বিকাল ০৪ঃ৫২ মিনিটে বীর সিরাজুল ইসলাম স্টেশনের যাত্রা করে এবং পৌছায় রাত ০৯ঃ০০ মিনিটে।
  • চিলাহাটির উদ্দেশ্যে যাত্রা করা রুপসা এক্সপ্রেস (৭২৭) ঈশ্বরদী পৌঁছায় সকাল ১১ঃ৪০ মিনিটে। এই ট্রেনটি পার্বতীপুর পৌঁছায় বিকাল ০৩ঃ০৫ মিনিটে । পার্বতীপুর থেকে পঞ্চগড় কমিউটার -১ বীর সিরাজুল ইসলাম স্টেশন এর উদ্দেশ্যে যাত্রা করে বিকেল ০৩ঃ১০ মিনিটে এবং পৌঁছায় রাত ০৭ঃ৩০ মিনিটে।
  • চিলাহাটির রুটে যাত্রা করা সীমান্ত এক্সপ্রেস (৭৪৭) ট্রেনটি ঈশ্বরদী পৌঁছায় রাত ০১ঃ৩০ মিনিটে। সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটি নাটোর পৌঁছায় রাত ০২ঃ২০ মিনিটে। নাটোর থেকে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস (৭৯৩) ট্রেনটি পঞ্চগড়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে রাত ০৩ঃ৫৭ মিনিটে এবং পঞ্চগড় পৌঁছায় সকাল ০৯ঃ৫০ মিনিটে।
উপরে উল্লেখিত পথ গুলো অনুসরণ করে আপনি খুব সহজেই আপনার গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন ।

ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

ট্রেনে ভ্রমণের জন্য পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে ভাড়া জেনে রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের ভাড়ার তালিকা নিজে দেয়া হলো।
  • শোভনঃ ১৮০ টাকা
  • শোভন চেয়ারঃ ২১৫ টাকা
  • প্রথম সিটঃ ২৮৫ টাকা
  • প্রথম বার্থঃ ৪৩০ টাকা
  • স্নিগ্ধাঃ ৩৬০ টাকা
  • এসি সিটঃ ৪৩০ টাকা
  • এসি বার্থঃ ৬৪৫ টাকা
উপরে উল্লেখিত ভাড়া করুন বাংলাদেশ রেলওয়ে থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। এগুলোর সাথে ১৫% ভ্যাট সংযুক্ত করতে হবে।

ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের বিরত স্টেশন সমূহ

ঈশ্বরদী হতে পঞ্চগড় পৌঁছাতে একটি ট্রেন অনেকগুলো স্টেশনে বিরতি নেয়। একটি সুন্দর এবং নিরাপদ ভ্রমণের জন্য বিরতি স্টেশন জেনে রাখা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই ঈশ্বরদী থেকে যাত্রা করা ট্রেনগুলো পঞ্চগড় পৌছাতে যে বিরতি স্টেশনে দাঁড়ায় সেগুলো আলোচনা করা হলো ।
  • নাটোর
  • সান্তাহার
  • আক্কেলপুর
  • জয়পুরহাট
  • পাঁচবিবি
  • বিরামপুর
  • ফুলবাড়ী
  • চিরিরবন্দর
  • দিনাজপুর
  • সেতাবগঞ্জ
  • পীরগঞ্জ
  • ঠাকুরগাঁ রোড
  • রুহিয়া
  • কিসমত
উপরে দেয়া বিরতি স্টেশনগুলো ঈশ্বরদী বাইপাস থেকে যাত্রা করা একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের। আপনি যদি এই পথে ভ্রমণ করেন তাহলে এগুলো আপনাকে সহযোগিতা করব। এছাড়া আপনি অন্য পথে যাত্রা করলে বিরতি স্টেশন আলাদা হতে পারে।

ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের ছুটির দিন সমূহ

ঈশ্বরদী টু পঞ্চগড় একটি আন্তঃনগর ট্রেন চলাচল করে। সেটি হচ্ছে একতা এক্সপ্রেস। একতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সাপ্তাহিক কোন ছুটি নাই অর্থাৎ এটি প্রতিদিন চলাচল করে।

আজকের আর্টিকেলে সচরাচর প্রশ্ন

প্রশ্নঃ একতা এক্সপ্রেস কখন ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় রুটে চলতে থাকে এবং এর সময় কী?
উত্তরঃ একতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রতিদিন চলতে থাকে। ঈশ্বরদী হতে পঞ্চগড়ে যাওয়ার জন্য এটি রয়েছে ১৪ঃ২১ টা থেকে এবং পঞ্চগড়ে পৌঁছায় ২১ঃ০০ টায়।
প্রশ্নঃ টিকিট এবং ভাড়া সম্পর্কিত তথ্য কী?
উত্তরঃ টিকিট এবং ভাড়া সম্পর্কে জানতে আমাদের আর্টিকেল মনোযোগ সহকারে পড়ুন।
প্রশ্নঃ ঈশ্বরদী হতে পঞ্চগড় মধ্যে কোন বিরতি স্টেশন রয়েছে কি?
উত্তরঃ হ্যাঁ, মোট ১৪ টি বিরতি স্টেশন রয়েছে।
প্রশ্নঃ ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় পৌঁছানোর জন্য সময় এবং দূরত্ব কত?
উত্তরঃ মোট দূরত্ব হলো ৩২৭ কিলোমিটার এবং পৌঁছাতে সময় লাগে ০৬ ঘন্টা ৪০ মিনিট।
প্রশ্নঃ ট্রেন যাত্রীদের জন্য সুরক্ষা উপায় কী?
উত্তরঃ ট্রেন যাত্রীদের জন্য সুরক্ষা উপায় হতে পারে ট্রেনের গাড়ি বা স্টেশনে নির্দিষ্ট সুরক্ষা ব্যবস্থা। অথবা আপনি ভেরিফাইড প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে পারেন। জকের আর্টিকেলে সচরাচর প্রশ্ন

শেষ কথাঃ ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় ট্রেনের সময়সূচী

এই ট্রেন সময়সূচী সম্পর্কিত আর্টিকেলটি দেখে যদি আপনি ঈশ্বরদী থেকে পঞ্চগড় যেতে চান, তবে নিশ্চিত হয়ে আপনি ভ্রমণ করতে পারেন। কারণ এই আর্টিকেলে প্রয়োজনীয় সকল তথ্য এবং সময়সূচী রয়েছে যা খুব সহজভাবে তৈরি করা হয়েছে। আপনি এই গাইড দিয়ে সহজেই আপনার গন্তব্যে পৌঁছতে পারবেন।
ট্রেন ভ্রমণে আপনার জন্য সুরক্ষা উপায় এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ তথ্যও এই আর্টিকেলে উল্লেখ করা হয়েছে, যাতে আপনি একটি সুরক্ষিত এবং সুবিধাজনক ভ্রমণ অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন। আপনার ট্রেন যাত্রা সফল হোক!

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

অর্ডিনারি আইটির নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url